সয়াবিন তেল এর স্বাস্থ্য ঝুঁকি

সয়াবিন তেল আমাদের জন্য যেমন উপকারি। তেমনি এর কিছু পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া রয়েছে। শরীরের জন্য প্রয়ােজনীয় প্রােটিন, ভিটামিন এবং অন্যান্য উপাদানের একটা চমৎকার উৎস হল সয়াবিন। এগুলাে আইসােফ্লেবােনস-এর একটা সমৃদ্ধ উৎস যার কয়েকটা স্বাস্থ্য উপযােগিতা আছে। এর অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট গুণগুলাের কারণে ক্যান্সার প্রতিরােধে সয়াবিনের নিয়মিত ব্যবহার সহায়ক হতে পারে। সয়াবিন রজঃনিবৃত্তিজনিত উপসর্গগুলি, বিরক্তিকর পেটের সমস্যা (ইরিটেক্ল বাওয়েল সিন্ড্রোম) , লােহার অভাবজনিত রক্তাল্পতা প্রতিরােধ করতে সাহায্য করতে পারে এবং হৃৎপিণ্ডকে রক্ষা করতে পারে। কিন্তু, কিছু মানুষ সয়াবিন এবং সয়া দ্রব্যগুলির প্রতি প্রতিক্রিয়াপ্রবণ (অ্যালার্জিক) হতে পারেন এবং এটা কারাে কারাে ক্ষেত্রে পেটফাঁপা ঘটাতে পারে। অতএব, খাওয়ার আগে অ্যালার্জিগুলি দূর করা হচ্ছে সবচেয়ে ভাল এবং তারপরেও পরিমিত পরিমাণ খান। সয়াবিন তেলের কিছু মারাত্মক পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া নিচে উল্লেখ করা হলো- 

 

  • অ্যালার্জিক প্রতিক্রিয়াঃ সয়া অ্যালার্জি সাধারণতঃ শৈশবে ঘটে। উপসর্গগুলির অন্তর্ভুক্ত ত্বকে চুলকানিযুক্ত প্রদাহ এবং অন্ত্রগুলি এবং কোলনের প্রদাহ। (এন্টারােকোলাইটিস)। যেসমস্ত মানুষ গরুর দুধের প্রতি অ্যালার্জিক তাঁরা প্রায়শঃ সয়ার প্রতিও অ্যালার্জিক হন।

 

  • পেটফাঁপা: পেটফাঁপা হচ্ছে পরিপাক। প্রণালীতে গ্যাস জমা। গবেষণা ইঙ্গিত দেয় যে সয়ায় থাকা কিছু ট্রাইস্যাকারাইডস, টেট্রাস্যাকারাইডস এবং ওলিগােস্যাকারাইডস পেটফাঁপা সৃষ্টি করতে পারে। সয়া ভেজানাে এবং সেগুলাে খাওয়ার আগে অঙ্কুরিত হতে দেওয়া সয়ার কারণে ঘটা পেটফাঁপা রােধ করতে সাহায্য করতে পারে।

 

  • এটা ছাড়া, অত্যধিক সয়াবিন খাওয়া ওজন বাড়া, উদরাময় এবং পাকস্থলীর খিচুনির। ঘটাতে পারে। সয়াবিন আইসােফ্লেবােনয়েডস-এর অত্যধিক ব্যবহার এন্ডােমিট্রিয়াল হাইপারপ্লেশিয়া (জরায়ুর এন্ডােমিট্রিয়াল সাবরাণব পুরুত্ব) ঘটায়।

 

এছাড়াও আর কিছু অপকারীতা হলো-

 

* অতিরিক্ত সেবনে ক্যানসার, ডায়াবেটিস ও হৃদ্রোগের ঝুঁকি বাড়ায়।

* অ্যান্টি-নিউট্রিয়েন্টস হিসেবে কাজ করে।

* তা ছাড়া বাজারে ভেজাল তেলের আধিক্য থাকায় সতর্কতা জরুরি।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *