নিজ পরিচয় গড়ো নারী – কবিতা

লেখক,

শ্রাবন্তী বড়ুয়া

আর কতোকাল থাকবে পরে
চারদেয়ালের কোণে ?
নিষ্পেষিত হবে আর কতো
হাজার অপমানে?

আর কতকাল খেলবে হোলি
তোমার রক্তে ওরা?
শাসন আর শোষণের শত বেড়ি
পরায় পায়ে যারা।

তোমার নিপুণ করস্পর্শে
ফিরে আসে গৃহে প্রাণ,
তবু কেন হায় স্বপ্ন তোমার
দিতে হয় বলিদান?

কেন প্রতি পদে ডিঙাতে হয়
বাধার খাড়া পাহাড়?
অথচ তোমার মধ্যে রয়েছে
সৃষ্টির অপার সম্ভার।

স্রষ্টার পরে তুমিই মাতা
সৃষ্টির কারিগর,
তবু কেন নারী হয়না তোমার
নিজের কোন ঘর?

বাবার বাড়ি, শ্বশুর বাড়ি
শেষ বয়সে ছেলে,
সব দিয়েও হায় নারী তুমি
নিজের বলে কি পেলে?

পরিচিতির বেলায়ও দেখি
সেই একই ব্যবধান,
নিজ পরিচয় গড়ো নারী
গাও জীবনের জয়গান।

থেকোনা শুধুই অমুকের মেয়ে
মাতা ও স্ত্রী  হয়ে,
ঠাঁই করে নাও কালের বুকে
বাঁচো নিজ পরিচয়ে।

সেদিন দেখবে হাজার মানুষ
করবে কুর্নিশ,
জানাবে শ্রদ্ধা, ভালোবাসা
আর স্নেহ শুভাশিষ।

সেইদিন হবে নারী জন্ম
সার্থক ধরণীতে,
মৃত্যুর পরও বেঁচে রবে তুমি
কোটি মানুষের চিতে।

বেগম রোকেয়া, সুফিয়া কামাল
প্রীতিলতার মতো,
বিনম্র চিতে স্মরবে সবাই
শ্রদ্ধায় অবিরত।

নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে
সবাই রুখে দাঁড়ান,
নারীকে দিন সমান সুযোগ
ভালোবাসা, সম্মান।