নারীদের নামাজ পড়ার সঠিক নিয়ম

নারীদের সঠিক উপায়ে নামাজ আদায়ের নিয়ম গুলো চলুন জেনে নেওয়া যাকঃ

* ফরজ নামাজগুলাে দাঁড়িয়ে পড়া ফরজ। তাই সর্বপ্রথম সর্বাঙ্গ সােজা রেখে কেবলামুখী হয়ে দন্ডায়মান হওয়া।

* জায়নামাজ বা পবিত্র স্থানে দুই পা একত্র করে মিলিয়ে দাঁড়ানাে। নামাজের নিয়ত বাঁধার পূর্ব পর্যন্ত হাতছাড়া অবস্থায় রাখা।

* উভয় পায়ের উপর ভর করে দাঁড়ানাে। শুধু এক পায়ের ওপর সম্পূর্ণভাবে দাঁড়ানাে মাকরুহ।

* নিয়ত করা ফরয। নিয়ত মুখে উচ্চারণ করা উত্তম । নিয়ত আরবী-বাংলা কিংবা নিজস্ব ভাষায় করা যায়। প্রচলিত আরবীতে করার কোন বাধ্যবাধকতা নেই।

* নিয়ত বাধার সময় কাপড়ের মধ্য থেকে হাত বের করবে না । নিয়ত বাঁধার জন্য হাত সিনা পর্যন্ত উঠাবে । এমনভাবে যেন আংগুলের অগ্রভাগ কাঁধ পর্যন্ত উঠে যায় । তাকবীরে তাহরীমা আল্লাহু আকবার বলা ফরজ।

* নারীরা বুকের উপর হাত বাঁধবে। অর্থাৎ হালকাভাবে বাম হাতের উপর ডান হাত রাখবে ।

* দাঁড়ানাে অবস্থায় চোখের দৃষ্টির সিজদার জায়গায় রাখা । তারপর ছানা পড়া সুন্নাত । আউযুবিল্লাহ- বিসমিল্লাহ পড়া সুন্নাত। সুরা ফাতিহা পুরাে পড়া ওয়াজিব । সুরা ফাতিহার পর আমীন বলা সুন্নাত। আস্তে আমিন বলা সুন্নাত।

* সূরা ফাতিহা পড়ার পর অন্য সূরা মিলানাের পূর্বে বিসমিল্লাহ পড়া সুন্নাত- মুস্তাহাব। সূরা মিলানাে ওয়াজিব।

* রুকুতে যাওয়ার সময় আল্লাহু আকবার বলা সুন্নাত । রুকু করা ফরজ। সামান্য ঝুঁকে রকু আদায় করা । রুকুতে উভয় হাতের| আংগুলসমূহ মিলিত রেখে হাঁটুর ওপর হাত রাখবে। হাটু ধরবে না এবং হাতের বাহু পাজরের সাথে মিলিত রেখে অল্প ঝুঁকে রুকু করবে এবং হাঁটু সামনের দিকে ঝুঁকিয়ে রাখবে আর পিঠ সামান্য বাঁকা রাখবে। রুকুতে চোখের দৃষ্টি দুই পায়ের মধ্যভাগের আঙ্গুলগুলাের বরাবর রাখা। রুকুতে কমপক্ষে তিনবার এই তাসবিহ সুবহানা রাব্বিয়াল আজিম পড়া। রুকু থেকে সােজা হয়ে দাঁড়ানাে ওয়াজিব। দাঁড়ানাের সময় সামি আল্লাহ হুলিমান হামিদা বলা তারপর রব্বানা লাকাল হামদ বলা সুন্নত।

* সিজদাতে যাওয়ার সময় আল্লাহু আকবার বলা সুন্নাত । দুই সিজদা করা ফরজ। | সিজদা করার সময় প্রথমে মাটিতে দুই হাটু লাগবে। তারপর দুই হাত। তারপর নাক। তারপরে কপাল। সিজদার তাসবিহ সুবহানা রব্বিয়াল আলা কমপক্ষে তিনবার পড়া সুন্নাত । সিজদা অবস্থায় চোখের দৃষ্টি নাকের দিকে নিবদ্ধ রাখা । এবং হাতের আঙ্গুলগুলাে মিলিয়ে হাটু বরাবর রাখা । সিজদার সময় শরীর একেবারে মিশিয়ে সিজদা করা। পুরুষদের মত সিজদা না করা।

* সিজদা থেকে ওঠার সময় প্রথমে কপাল তারপর নাক তারপর হাত জমিন থেকে ওঠানাে সুন্নত।

* দুই সিজদার মাঝখানে স্থির হয়ে বসা ওয়াজিব । অনেকে স্থির না হয়ে তাড়াতাড়ি রুকুতে চলে যায়। তাদের ওয়াজিব তরক হয়। এজন্য ধীর-স্থিরভাবে বসে দুই সিজদার মাঝখানে এই দোয়াটি পড়া اللهم اغفر لي وارحمني وارزقني واهدني প্রথম সিজদার পর দ্বিতীয় সিজদা করা ফরজ।

* এইভাবে দুই রাকাত নামাজ পূর্ণ হলে বসে আত্তাহিয়াতু পাঠ করা ওয়াজিব । যদি দুই রাকাত বিশিষ্ট নামাজ হয় তবে আত্তাহিয়াতুর পর দরুদে ইবরাহীম পাঠ করা। তারপর দোয়া মাসুরা পড়া । নারীগণ বসা অবস্থায় নিতম্বের উপর বসবে। এবং উভয় পা ডান দিকে বের করে দিবে। এবং যথাসম্ভব আঙ্গুলগুলাে কেবলা মুখী করে রাখবে।

* তিন বা চার রাকাত বিশিষ্ট নামাজ হলে আত্তাহিয়াতুর পরে দাঁড়িয়ে বাকি রাকাতগুলাে পূর্বের নিয়মে আদায় করবে । তারপর আসসালামু আলাইকুম ওরাহমাতুল্লাহ বলে প্রথম ডানদিকে পরে বাম দিকে সালাম ফিরাবে ।