কি হবে যদি আমরা চোখের পাতা না ফেলি?

কি হবে যদি আপনি চোখের পাতা না ফেলতেন?

 

আমাদের চোখের পাতা প্রতি ৪ সেকেন্ড পর একবার বন্ধ হয়। আমরা একে চোখ টিপ টিপ করা বলি৷ ইংরেজিতে যাকে বলে Eye Blink. কখনো ভেবে দেখেছেন কি? যদি চোখের পাতা আমরা না ফেলি তবে আমাদের কি হবে?

 

আমাদের চোখের পাতা যখন বন্ধ হয় তখন তার সাথে কিছু লিকুইড নিঃসৃত হয় যা চোখের বলকে ভেজা রাখে। এই লিকুইডে রয়েছে এন্টি ব্যাকটেরিয়াল উপাদান যার ফলে চক্ষু কোটরে কোনো ব্যাকটেরিয়া জন্মাতে পারে না। এছাড়াও চক্ষু কোটরের সাদা অংশে যে ময়লা (ছোটো ছোটো পার্টিকল) জমা হয় তা চোখের পাতা পড়ার সাথে সাথে মুছে যায়। আমরা যদি চোখের পাতা না ফেলি তবে আমাদের চোখে ইউভি রশ্মি (UV ray) বিপুল পরিমাণে প্রবেশ করবে। এতে আমরা ৪৮ ঘন্টার জন্য ক্ষণস্থায়ী অন্ধত্বের শিকার হতে পারি। 

 

 এছাড়া চোখের পাতা না ফেললে চোখের কোটর ভেজা থাকবে না। ফলে চোখের কোটর শুকিয়ে যাবে। এতে করে আমাদের দৃষ্টিশক্তি ঝাপসা হয়ে যাবে। এমনকি কর্নিয়া নষ্ট হয়ে যেতে পারে। চোখে নানা রকম রোগ জীবাণু বাসা বাধবে। চোখের ভেতরে আলো ক্রমাগত প্রবেশ করার হলে অপটিক স্নায়ু ক্ষতিগ্রস্ত হবে। শুধু তাই নয়, এতে করে আমাদের প্রচন্ড মাথাব্যথা এবং ফলশ্রুতিতে নিদ্রাহীনতা সৃষ্টি হবে। চোখের পাতা না ফেললে চোখের ভিতরের রক্ত শিরাগুলোর রক্ত চলাচল বিঘ্নিত হবে, রক্ত জমাট বেঁধে চোখ লাল হয়ে যায়। আর এই প্রতিক্রিয়া গুলো শুরু হবে চোখের পাতা যদি কেবল ১ মিনিট যাবৎ বন্ধ না হয় তবেই। সুতরাং বুঝতেই পারছেন, চোখের পাতা ফেলা আমাদের জন্য কতটা গুরুত্বপূর্ণ। 

READ MORE:  পৃথিবীর সবচেয়ে শক্ত খনিজ, হীরা নিয়ে অজানা তথ্য