কিছুদিন পরপরই মুখে ঘা হয়? লিখাটি পড়ুন

মুখের ঘা- Mouth Ulcer in Bengali- 

 

মুখের ঘা হলে অসহ্য যন্ত্রণা হয়। বেশ কিছু কারণে মুখের ঘা হয়। অনেকের প্রায়ই এই মুখের ঘা এর সমস্যা হয়ে থাকে। কিছু সতর্কতা অবলম্বন করে এই মুখের ঘা থেকে মুক্তি পাওয়া যেতে পারে। 

 

মুখের ঘা হওয়ার কারণ- Causes of Mouth Ulcer in Bengali- 

 

সাধারণত, মুখে গালের ভেতরের অংশে বা জিভে ঘা হয় কোনও ভাবে কেটে গেলে। আবার শক্ত ব্রাশ দিয়ে দাঁত পরিষ্কার করলেও এ সমস্যা দেখা দেয় অনেকের। খুব গরম পানীয় পান করলে বা কিছু চিবাতে যেয়ে গালের ভেতরে কামড় লাগলেও ঘা হতে পারে। এইসব অতি সাধারণ কারণ ছাড়াও মুখের ঘা নানা মরণব্যাধির কারণে হতে পারে। যাদের ডায়াবেটিস বা হৃদরোগ আছে এবং দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম এবং দীর্ঘদিন ওষুধ খাচ্ছেন, তাদের মুখেও এক ধরনের জীবাণু বাড়তে থাকে। সম্প্রতি এক গবেষণায় দেখা যায় যে, যাদের ধূমপান এবং জর্দা দিয়ে পান ইত্যাদি খাওয়ার অভ্যাস রয়েছে তাদের মধ্যে মুখের ঘা খুব বেশি হয় এবং সেই সঙ্গে মুখে ক্যান্সার হওয়ার সম্ভাবনাও বেশি। বিশেষত যারা পানের সঙ্গে জর্দা খান এবং অনেকবার পান খান তাদের মুখের ঘা বেশি থাকে। সাধারণ ক্ষেত্রে আয়রন বা ভিটামিন বি-১২’র অভাবেই এ সমস্যা বেশি হয়। সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া খুব জরুরি। যেমন- ফল, শাকসবজি, দুধ, মাছ এবং চর্বি ছাড়া মাংস। এসব খাবারে প্রচুর পরিমাণ জিঙ্ক, ভিটামিন ও আয়রন থাকায় মুখের ঘা সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। সঙ্গে নিয়মিত মাউথ ওয়াশ ব্যবহারের অভ্যাস করুন।

সব চাইতে জরুরি বিষয় হল চিকিত্‍সার পরও মুখের ঘা যদি দু’সপ্তাহ থেকে তিন সপ্তাহ স্থায়ী হয়, তবে অবশ্যই বায়োপসি বা মাংসের টিস্যু পরীক্ষা করে দেখতে হবে। কারণ মুখের বেশ কিছু ঘা বা সাদা ক্ষতকে বিজ্ঞানীরা প্রি-ক্যান্সার লিশন বা ক্যান্সারের পূর্বাবস্থার ক্ষত বলে থাকেন। সুতরাং মুখের ঘা প্রতিরোধে দাঁত ও মুখের যত্ন নেবেন এবং মুখের ভিতরের অংশে ঘা হওয়া মাত্রই চিকিত্‍সার ব্যবস্থা নিন।

READ MORE:  পায়ের কড়া দূর করার উপায় কি?

 

মুখের ঘা এর চিকিৎসা – Treatment of Mouth Ulcer in Bengali

 

মুখের মধ্যে আলসার বা ঘা নিরাময়ে চিকিৎসার প্রয়োজন নাও হতে পারে। এগুলি রোগীর নিজের যত্নে বা কিছু ঘরোয়া প্রতিকারের সাহায্যে নিরাময় হয়ে যেতে পারে। তবে চিকিৎসক দ্রুত নিরাময়ের জন্য কিছু ওষুধ প্রয়োগ করতে পারেন। সেসব ওষুধের মধ্যে আছে:

 

স্টেরয়েড নয় এমন অ্যান্টি ইনফ্ল্যামেটরি (ফোলা কমানোর) ওষুধ (NSAID) দেওয়া হতে পারে যাতে ব্যাথা কমে।

 

মুখের ভিতর ধোয়ার জন্য অ্যান্টিমাইক্রোবিয়্যাল মাউথওয়াশ এবং যন্ত্রণা অসাড় করার মলম ফোলা (ইনফ্ল্যামেশন) এবং ব্যাথা কমাতে সাহায্য করে।

 

  • একবার যদি আলসারের প্রকৃত কারণ চিহ্নিত করা যায় তাহলে নির্দিষ্ট রোগের জন্য পৃথক চিকিৎসা অনুসৃত হতে পারে, মুখের নির্দিষ্ট সংক্রমণের জন্য অ্যান্টিমাইক্রোবিয়্যাল যেমন অ্যান্টিবায়োটিক্স বা অ্যান্টিভাইরাল ।

 

ঘাটতি পূরণে ভাইটামিন B12 বা B কমপ্লেক্স সাপ্লিমেন্ট।

 

অ্যানালজেসিক (যন্ত্রণা অসাড় করার জন্য) এবং / বা ঘায়ের ওপর লাগানোর জন্য অ্যান্টি ইনফ্ল্যামেটরি মলম যাতে ব্যাথা এবং ফোলা কমে।

 

মুখের ঘা হলে যা করা থেকে বিরত থাকতে হবে – What to avoid if you have Mouth Ulcer in Bengali- 

 

মশলাদার বা অম্লজাতীয় (অ্যাসিডিক) খাবার খাওয়া।

 

  • সোডা খাওয়া।

 

কড়া মাউথওয়াশ বা টুথপেস্ট ব্যবহার করা

 

মুখের আলসার টিপে পুঁজ বার করার চেষ্টা

 

  • বারবার মুখের ক্ষতে হাত দেওয়া

 

  • মদ্যপান বা ধূমপান

 

খুব গরম পানীয় খাওয়া।

 

বেশি মাত্রায় চকোলেট এবং বাদাম খাওয়া এবং দিনের মধ্যে বারবার কফি পান করা।

 

মুখের ঘা প্রতিরোধের উপায়- Ways to prevent Mouth Ulcer in Bengali-

 

দাঁত পরিষ্কার করার জন্য একটি নরম দাঁড়ার, উন্নত মানের ব্রাশ ব্যবহার করুন। দিনে দু’বার ব্রাশ করুন।

 

অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যেমন ভাইটামিন এ, সি এবং ই সমৃদ্ধ খাবার, উদাহরণস্বরূপ অন্যান্য খাবারের সঙ্গে সাইট্রাস ফল, পেঁপে, আম, গাজর, লেবু, পেয়ারা, বেল পেপার (রঙীন ক্যাপসিকাম), কাঠবাদাম, আমলা খান।

READ MORE:  যৌনাঙ্গে আচিল হলে করণীয় কি?

 

  • যেসব খাবার চিবোতে সুবিধা হয়, সেসব খাবার খান।

 

নির্দিষ্ট সময় অন্তর দাঁতের পরীক্ষা করান। বেশি করে জল খান।

 

মুখের ঘা দূর করার ঘরোয়া উপায়- Home remedies to get rid of Mouth Ulcer in Bengali- 

 

এবার জেনে নিন এই ঘরোয়া উপায়গুলো:

 

যষ্টিমধু

মুখের ঘা সারাতে যষ্টিমধু বেশ কার্যকর। এক টেবিল চামচ যষ্টিমধু দুই কাপ পানিতে দুই থেকে তিন ঘন্টা ভিজিয়ে রাখুন। এটি দিয়ে দিনে কয়েকবার কুলকুচি করুন। যষ্টিমধুর অ্যান্টি-ইনফ্লামেটরী এবং অ্যান্টি-মাইক্রোবিয়াল উপাদান মুখের ঘা ভাল করে থাকে।

 

টিব্যাগ

এই রোগের ক্ষেত্রে খুব সহজ ঘরোয়া উপায় হল টি-ব্যাগ। এটি দ্রুত ব্যথা এবং ইনফ্লামেশন দূর করে। একটি টি-ব্যাগ ঠান্ডা পানিতে ভিজিয়ে সেটি ঘায়ের স্থানে লাগান। সঙ্গে সঙ্গে আপনার ব্যথা কমিয়ে দিবে।

 

নারিকেল তেল

সহজলভ্য নারিকেল তেল দিয়ে মুখের ঘা দূর করা সম্ভব। একটু তুলার সঙ্গে নারকেল তেল লাগিয়ে সেটি মুখের ঘায়ের স্থানে লাগান। নারিকেল তেলের অ্যান্টি মাইক্রোবিয়াল উপাদান ঘা সারিয়ে তুলতে সাহায্য করবে।

 

তুলসি পাতা 

কয়েকটি তুলসি পাতাসহ দিনে তিন থেকে চারবার পানি পান করুন। এটি দ্রুত মুখের ঘা প্রতিরোধ করবে এবং মুখে ঘা হওয়ার প্রবণতা কমিয়ে দিবে।

 

বেকিং সোডা

এক চা চামচ বেকিং সোডা অল্প পানিতে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। এই পাতলা পেস্টটি মুখের ঘায়ের স্থানে লাগিয়ে নিন। এটি দিনে কয়েকবার করুন। এছাড়া বেকিং সোডা সরাসরি মুখের ঘায়ের স্থানে লাগাতেও পারেন।

 

মধু

তুলার সঙ্গে মধু লাগিয়ে নিন। এবার এটি মুখের ঘায়ের স্থানে লাগান। ব্যথার কষ্ট কমে আসবে। 

 

এছাড়া মুখের ঘায়ের স্থানে গ্লিসারিন, ভিটামিন-ই অয়েলও লাগাতে পারেন।

 

মুখের ঘা এর ঔষধ- Medicine of Mouth Ulcer in Bengali- 

 

READ MORE:  বন্ধ্যাত্ব এর কারণ এবং চিকিৎসা

মুখের ঘা এর ঔষধ এর নাম জেনে নিন। 

 

মুখে ঘা ও ব্যথা থাকে তাহলে ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী carmellose sodium, benzocaine gels যুক্ত পেস্ট ও জেল মুখে লাগাতে পারেন। এবং Chlorhexidine mouthwash মাউথ অয়াশ মুখের ব্যথা দূর করতে সাহায্য করে। বাজারে Bongel cream, viodin mouthwash, riboflavin পাওয়া যায়, যেটা মুখের ঘা এর জন্য ভালো।