Brazil- Argentina পরিসংখ্যানে কে এগিয়ে?

Brazil। Argentina। Football। Head to head। 

Which team is better? FIFA। World Cup। Friendly match। Qualifier। Confederation Cup। BRAZIL। ARGENTINA। 

 

আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল ফুটবল প্রতিদ্বন্দ্বিতা এই দুইটি দলের মধ্যকার প্রতিদ্বন্দ্বিতাকে অনেক সময় “দক্ষিণ আমেরিকানদের যুদ্ধ” বলা হয়।

 

প্রথম সাক্ষাৎ

আর্জেন্টিনা ৫ – ২ ব্রাজিল

প্রীতি খেলা

(২০ সেপ্টেম্বর ১৯১৪, বুয়েনোস আইরেস)

 

সর্বশেষ সাক্ষাৎ

ব্রাজিল ০-১ আর্জেন্টিনা (১০ই জুলাই, কোপা আমেরিকা ফাইনাল ২০২১ ব্রাজিল।)

 

পরিসংখ্যান

মোট সাক্ষাৎ

১০৮

সর্বাধিক জয়

ব্রাজিল ৪৩

সর্বোচ্চ গোলদাতা

পেলে (৮)

বৃহত্তম জয়

আর্জেন্টিনা ৬—২ ব্রাজিল

(রোকা কাপ, বুয়েনোস আইরেস, ৫ মার্চ ১৯৪০)

 

আর্জেন্টিনা এবং ব্রাজিলের মধ্যে ফুটবল প্রতিদ্বন্দ্বিতা শুরু হয়, উভয় দেশে খেলাটি জনপ্রিয় হওয়ার আগেই। বর্তমান সময়ে খুব কম মানুষই দেশ দুইটির মধ্যকার অতীত যুদ্ধ এবং রাজনৈতিক বোঝাপড়ার কথা স্মরণ করে। দেশ দুইটির মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতা প্রায় সব ধরনের ক্রীড়াতেই লক্ষ্য করা যায়, তবে পুরুষ ফুটবলে এই প্রতিদ্বন্দ্বিতা একটু বেশিই। খেলায় কোন দলই পরাজয় বরণ করতে চায়না, এমনকি কখনো কখনো যদি এদের মধ্যকার খেলাটি কোন চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ হয় তবে ঐ চ্যাম্পিয়নশিপের তুলনায় এই দুই দলের খেলাটিই বেশি গুরুত্ব লাভ করে। দুই দলের মধ্যকার এই প্রতিদ্বন্দ্বিতার তীব্রতার উদাহরণস্বরূপ ১৯৪৬ সালের ঘটনার কথা উল্লেখ করা যেতে পারে (নিচে দেখুন), যার পর দল দুইটি দশ বছর যাবত্‍ একে অপরের মুখোমুখি হয়নি।

 

পরিসংখ্যান

সম্পাদনা

খেলা    আর্জেন্টিনা জয়ী    ( ৪০) ড্র    (২৬) ব্রাজিল জয়ী (৪৩)    গোল ( ১৬৩/১৬৫)

 

প্রধান শিরোপা       আর্জেন্টিনা    ব্রাজিল

বিশ্বকাপ                    ৫

কোপা আমেরিকা ১৫                   ৯

          

কনফেডারেশন্স   ৬                ৪

READ MORE:  বিপিএল ২০২৩ সময়সূচি, সব দলের পূর্ণাঙ্গ স্কোয়াড তালিকা

 কাপ                 

 

আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিল প্রথম মুখোমুখি হয় ১৯১৪ সালে।সিবিএফ ও এএফএ এ হিসেব কিছুটা ভিন্ন হয়।ফিফার হিসেব অনুযায়ী এরপর থেকে এখন পর্যন্ত দল দুইটি টি খেলায় অংশগ্রহণ করেছে,(যুব দলের খেলা ছাড়া)। এই ১০৮টি খেলার মধ্যে ৪০ টিতে জয় পেয়েছে আর্জেন্টিনা, ৪৩ টিতে জয় পেয়েছে ব্রাজিল। মোট গোলের ১৬২টি করেছে আর্জেন্টিনা এবং ১৬৬টি করেছে ব্রাজিল।[২] শুধুমাত্র বিশ্বকাপের খেলা হিসাব করলে তাতে ব্রাজিল ২টি জয় নিয়ে এগিয়ে আছে, একটি খেলা হয়েছে ড্র এবং অন্যটি জিতেছে আর্জেন্টিনা। অন্যদিকে, কোপা আমেরিকায় বেশি জয় পেয়েছে আর্জেন্টিনা। তারা জিতেছে ১৬টি খেলায়, ৮টি খেলা ড্র হয়েছে এবং ১০টি জিতেছে ব্রাজিল। দল দুইটির মধ্যে এখন পর্যন্ত ৫০টি প্রদর্শনী খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর মধ্যে ১৮টি জিতেছে ব্রাজিল, ২০টি জিতেছে আর্জেন্টিনা এবং ড্র হয়েছে ১২টি। ১৯৭০ এর দশকে কিছুটা খারাপ সময় কাটায় আর্জেন্টিনা। সেসময় তারা ১২টি খেলার মধ্যে মাত্র একটিতে জয় লাভ করে, ৭টিতে পরাজিত হয় এবং ৪টি খেলা ড্র হয়।

 

দুই দলের মধ্যে সবচেয়ে বড় জয় পেয়েছে আর্জেন্টিনা, তারা ৬-১ গোলের ব্যবধানে ব্রাজিলকে পরাজিত করে (বুয়েনোস আইরেস, ১৯৪০)। এছাড়া, তারা ১-৫ গোলের ব্যবধানেও জয় পেয়েছে (রিউ দি জানেইরু, ১৯৩৯)। ব্রাজিলের বড় জয়গুলো হল ৬-২ গোলের ব্যবধানে (রিউ দি জানেইরু, ১৯৪৫ ও ১৯৬০) এবং ১-৪ গোলের ব্যবধানে (বুয়েনোস আইরেস, ১৯৬০)।

 

আর্জেন্টিনা এবং ব্রাজিলের মধ্যে সর্বশেষ মহাদেশীয় খেলা অনুষ্ঠিত হয় ২০২১ সালের ১০ জুলাই, ব্রাজিলর মারাকানা শহরের রিউ ডি জেনিরিও তে। খেলাটি ছিল ২০২১ কোপা আমেরিকার ফাইনাল। খেলায় আর্জেন্টিনা ১-০ গোলের ব্যবধানে জয় লাভ করে। আর্জেন্টিনার পক্ষে একমাত্র গোলটি করেছিলেন এঙ্গেল ডি মারিয়া।