এডসেন্স এডস লিমিট কেন হয়? সহজেই যেভাবে ফিক্স করতে পারবেন | Adsense Ad limit solution

এডসেন্স এডস লিমিট হলো এডসেন্স বিজ্ঞাপন আপনার সাইটে না দেখানো বা কম দেখানোকে এডস লিমিট বলা যায়। এডস লিমিট বলতে বলা যায় সাইটে বিজ্ঞাপন সীমিত আকারে দেখানোই হলো এডস লিমিট।

গুগল এডসেন্স এডস লিমিট হলে এডসেন্স থেকে এরকম মেইল আসে “Ads limit placed on your site”  এডস লিমিট হলে সাইটে কোনো বিজ্ঞাপন দেখায় না, বিজ্ঞাপন দেখালেও খুব কম দেখায়। ফলে ইনকাম অনেক কম হয়। এজন্য ব্লগারদের অনেক চিন্তার বিষয় হলো এডস লিমিট হওয়া

 

গুগল এডসেন্স এডস লিমিট এর কারন কি? (What is the reason for Google Adsense Ads limit?)

 

 

সাধারণ দুই ধরনের এড লিমিট দেওয়া হয়।

Account being assessed

এই ধরনের এড লিমিট তখন দেওয়া হয় যখন Adsense আপনার ওয়েবসাইটের ট্রাফিক এর উৎস খুঁজে না পায়। বিশেষ করে যখন ওয়েবসাইটে প্রচুর পরিমাণে বট ট্রাফিক আসে তখন এই Ad Serving Limits দিয়ে থাকে।

 

 

Invalid traffic concerns

এটাও অনেকটা উপরের টার মতো। এই এড লিমিট টা বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ট্রাফিক কিনলে বা প্রচুর পরিমাণে ফেসবুক ট্রাফিক হলে তখন দেওয়া হয়ে থাকে।

এছাড়া গুগল এডসেন্স এডস লিমিট এর আর ও কারনগুলো হলোঃ

  • ওয়েবসাইটের জন্য ট্রাফিক কেনা।
  • ওয়েবসাইটের বাউন্স রেটের হার বৃদ্ধি।
  • ফেসবুক থেকে অধিক ট্রাফিক আসলে।
  • হঠাৎ অধিক পরিমাণে ব্যাকলিঙ্ক তৈরি করলে।
  • ওয়েবসাইটে অরগ্যানিক ট্রাফিক না থাকলে।
  • নিজের এড নিজে ক্লিক করা।
  • নিজের আইপি এড্রেস থেকে এড ইমপ্রেশন দেওয়া।
  • বার বার ওয়েবসাইটের এড চেক করা।
  • হঠাৎ ওয়েবসাইটে ট্রাফিকের পরিমাণ বেড়ে যাওয়া।

 

এডসেন্স এড লিমিট থেকে নিরাপদ থাকার উপায় (Ways to stay safe from AdSense ad limit)

গুগল এডস প্রকাশক হিসাবে বিজ্ঞাপন দাতাদের জন্য গুণগত ও মানসম্পন্ন ট্র্যাফিক নিয়ে আসা আমাদের দায়িত্ব।গুগল আমাদের টাকা কেনো দিবে? ওদের জন্য ভালো সাঠিক ট্রাফিক এবং বিজ্ঞাপন দাতাদের জন্য গুনগত এবং মানসম্পন্ন ট্রাফিক নিয়ে আসা। এখন আপনার ওয়েবসাইটে ট্রাফিক আসলো কিন্তু আবার সাথে সাথে চলে গেলো অথবা সাইটে আসলো এবং এডস ক্লিক করলো পেজ লোড হওয়ার আগেই ব্যাক নিয়ে নিলো এমন হলে তো বিজ্ঞাপন দাতারা আপনার সাইটে বিজ্ঞাপন দিতে চাইবে না। তাই আপনাদের উচিত এডসেন্স এড লিমিট থেকে নিরাপদ থাকার উপায় হিসেবে নিজে খুজে ট্রাফিক নিয়ে আসা বন্ধ করা।

READ MORE:  কিভাবে অনলাইনে ইনকাম করা যায় - বিস্তারিত ways to earn money online

 

 

গুগল Adsense এড সার্ভিং লিমিট হলে কী করবেন? (What to do if Google Adsense Ad Serving Limit?)

 

গুগল এডসেন্স এড লিমিট হলে খারাপ না আপনার জন্য ভালোই। কেন ভালো বলছি তাইতো ভাবছেন।আজ থেকে ২ বছর আগেও যদি ইনভেলিট ক্লিক পরতো তাহলে গুগল এডসেন্স ডিজেবল হয়ে যেতো কিন্তু এখন তা না হয়ে কিছু সংখ্যক লোকের কাছে এড দেখানো বন্ধ করে দেয়। এখন কথা হচ্ছে গুগল Adsense এড সার্ভিং লিমিট হলে কী করবেন? আপনি যদি পারেন অরগানিক ট্রাফিক নিয়ে আসুন এবং আপনার সাইট থেকে কিছু সময় এর জন্য গুগল এডসেন্স এর এড দেখানো বন্ধ রাখুন।

 

কিভাবে এডসেন্স Ad serving Limit fix করবেন? (How to fix AdSense Ad serving Limit?)

 

আপনি যদি পারেন অরগানিক ট্রাফিক নিয়ে আসুন এবং আপনার সাইট থেকে কিছু সময় এর জন্য গুগল এডসেন্স এর এড দেখানো বন্ধ রাখুন। আপনি চাইলে আপনার ওয়েবসাইট থেকে সকল এডস কোড মুছে দিতে পারেন। অথবা গুগল এডসেন্স থেকেও সাইটে এড দেখানো বন্ধ করতে পারেন।কিভাবে আপনার ওয়েবসাইটে এড দেখানো বন্ধ করবেন গুগল এডসেন্স থেকে তা নিছে দেওয়া হলোঃ

  • প্রথমে গুগল এডসেন্স ওয়েবসাইটে যান
  • ড্যাশবোর্ড থেকে Ads এ ক্লিক করুন।
  • অটো এড বন্ধ করে দিন
  • আপনি যদি amp ব্যবহার করে থাকেন তাহলে amp ও বন্ধ করে দিন।
  • এবার Ads by Unit এ ক্লিক করুন
    আপনার তৈরি প্রতিটি এড ইউনিট Archive করে ফেলুন।
  • এবার ২ থেকে ৩০ দিন পর্যন্ত অপেক্ষা করুন।

এর মধ্যেই আপনার গুগল Adsense এড সার্ভিং লিমিট চলে যাবে। যদিও ৩/৪ দিনের এর মধ্যে গুগল এডসেন্স এড লিমিট চলে যায়। তবে আপনার সাইটে যদি ইনভেলিট ট্রাফিক আসতেই থাকে তাহলে বেশি দিন সময় নিবে। সেই সাথে ঠিক হবার কয়েক দিন পর আবার গুগল Adsense এড সার্ভিং লিমিট চলে আসবে। তাই ইনভেলিট ট্রাফিক থেকে এবং ইনভেলিট ক্লিক থেকে বিরত থাকুন।

READ MORE:  Most Searched Keywords in Bengali | গুগলে সর্বাধিক খোঁজা কিয়ার্ড