সুস্থ থাকতে চাইলে পানি পানের বিকল্প নেই

আমরা  যদি সুস্থ ও মানসিক চাপমুক্ত থাকতে চাই এবং একটি সুস্থ স্বাভাবিক জীবন অতিবাহিত করতে চাই তবে আমাদেরকে প্রতিদিন পরিমাণ মতো বিশুদ্ধ পানি পান করতেই হবে। আমাদের জন্য পানিই হচ্ছে সবচেয়ে বেশি পানযোগ্য এবং সেরা পানীয়। 

আমাদের অস্তিত্ব পানি ছাড়া কল্পনাই করা যাবে না। আমাদের শরীরের মূল গাঠনিক উপাদানই পানি। শুধু তৃষ্ণা মেটানোর জন্য পানি পান নয়, সুস্থ থাকতেও চাই পানি পান করা। 

 

আমরা অনেকে অনেক প্রসাধনী সামগ্রী ব্যবহার করি; ত্বকের সৌন্দর্যের জন্য। কিন্তু আমরা কি জানি? দিনে পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি পান করলে আমাদের ত্বক সুস্থ ও সতেজ থাকবে। ত্বকের যথাযথ আদ্রতা  বজায় থাকে ঠিকমতো পানি পান করলে। অন্যদিকে ত্বক সুন্দর রাখার জন্য আমরা যেসব প্রসাধনী সামগ্রী ব্যবহার করি সেগুলো ব্যবহারে ত্বকের অনেক ক্ষতি হয়। আমাদের শরীরের জন্য রক্ত একটি অপরিহার্য উপাদান। জেনে অবাক হবেন, রক্তের ৮৩ ভাগই পানি দ্বারা গঠিত। ঠিক মতো  পানি না পান করলে রক্তের মাধ্যমে কোষে পুষ্টি ও অক্সিজেন সরবরাহ ব্যাহত হবে। 

 

আমরা তো পরিশ্রম করলে অনেক ক্লান্ত হয়ে পড়ি। ক্লান্তি দূর করার জন্য পানি পানের বিকল্প নেই। পরিশ্রম শুরু করার আগে ও পরিশ্রম শেষ করার পর পানি পান আপনার জীবনে এনে দিবে তারুণ্যের গতি। অনেকের মাঝে মাঝে মাথা ব্যথা হয় পানি পর্যাপ্ত পান না করার জন্য। কারণ মস্তিষ্কের ৯০ ভাগ পানি দ্বারা গঠিত। তাই মাথা ব্যথা থেকে বাঁচতে পানি পান করুন পর্যাপ্ত পরিমাণে। মাইগ্রেনজনিত মাথা ব্যথা নিরাময় করার জন্যও পানি পান একটি উত্তম চিকিৎসা।

 

পানি পান করলে হজম প্রক্রিয়া ত্বরান্বিত হয়। পাকস্থলী সুস্থ থাকে। কিডনীতে পাথর জমা রোধ করে। কিডনী বিকল প্রতিহত করে। পানি ঠিকমতো পান করলে স্ট্রেস কমে। সুস্থ থাকতে চাইলে প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে পানি পান করতে হবে। অত্যন্ত ৫ গ্লাস পানি সকালে ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে পান করা উচিত। সুস্থ থাকতে চাইলে চুমুকে চুমুকে দিনে রাতে কিছুক্ষণ পরপর পানি পান করতে হবে আমাদের। অবশ্যই কোমল পানীয় ও এনার্জি ড্রিংকস এড়িয়ে চলতে হবে। আমাদের মনে রাখতে হবে সুস্থ সবল রোগমুক্ত থাকতে চাইলে পানি পানের বিকল্প নেই।