টিকটিকির লেজ খসে পড়ে কেন ? খসে যাওয়া লেজ পুনরায় কিভাবে গজায়?

ঘরের দেয়াল ঝাড়ু দেয়ার সময় অনেকেই আমরা খেয়াল করেছি, টিকটিকি তার লেজ খসিয়ে দৌড়ে পালায়। এমন দৃশ্য প্রায়ই আমরা আমাদের বাসায় থাকা এই সরীসৃপ প্রাণীটির ক্ষেত্রে দেখে থাকি। কিন্তু  কেনও টিকটিকি তার লেজ খসায়? টিকটিকির লেজ খসে যায় কেন?  খসিয়ে যাওয়া লেজ পুনরায় গজায় কিভাবে? 

 

টিকটিকি তার লেজ খসায় যখন সে বিপদে পড়ে। শিকারি প্রাণীদের ধোঁকা দেওয়ার জন্য লেজ খসায়। টিকটিকির লেজ খসে যাওয়ার পরও তা নড়াচড়া করতে থাকে। এর ফলে শিকারি প্রাণী বিভ্রান্ত হয়। এই ফাঁকে টিকটিকি দৌড়ে পালায়। শুধু বিপদ থেকে বাঁচাতেই টিকটিকি লেজ খসায় এমনটি নয়। টিকটিকির লেজ অনেক নরম কিছু কশেরুকার সমন্বয়ে গঠিত। টিকটিকির লেজ যেখান থেকে শুরু হয়, ঠিক সেখান থেকে কোনো রক্ত প্রবাহিত হয় না। টিকটিকি বিপদে পড়লে মস্তিষ্ক থেকে সিগন্যাল প্রেরণ করে লেজের সর্বপ্রথম কশেরুকা ফেলে দেয়। ফলে পুরো লেজটি খসে পড়ে। 

 

টিকটিকির লেজটি পুনরায় যে প্রক্রিয়ায় গজায় তাকে বলে এপিমোরফোসিস। এটি হলো ক্ষতিকর কোষ পুনরায় গঠনের প্রক্রিয়া। তবে এটি হলো অপূর্ণ পুনর্জন্ম প্রক্রিয়া। এই ধরনের প্রক্রিয়ায় টিকটিকি ঠিক আগের লেজ পায় না। এই লেজের গঠন আলাদা; রঙের প্যাটার্ন আলাদা, এবং সমস্ত টিস্যু আলাদা। কোনও হাড় নেই; কঙ্কালটি সম্পূর্ণ কার্টিলাজিনাস, টিউবের মধ্যে কেবল টিউবের মতো গঠন। টিকটিকির দেহের জিনোম এবং জৈব রসায়ন এই রকমই। টিকটিকি হারিয়ে যাওয়া অঙ্গগুলিকে মোটেই পুনরুত্থিত করতে পারে না এবং তাদের পুনরুত্থিত লেজগুলি মূলত একদম নতুন ধরনের লেজ। টিকটিকি তার সমগ্র জীবদ্দশায় ৬ বারের মতো লেজ খসায়। টিকটিকির লেজ খসানোর পর পুনরায় লেজ গজানোর জন্য ৬০ দিনের মতো সময় লাগে।