কিভাবে অনলাইনে ইনকাম করা যায় – বিস্তারিত

 

অনলাইনে ইনকাম সম্পর্কে আজ বিস্তারিত ধারনা নেবো। অন্য বিষয় গুলো দেখার পূর্বে ভূমিকাটি পড়বার জোর অনুরোধ রইল।

 

ভূমিকা

 

অনলাইনে ইনকাম সম্পর্কে আমরা কম বেশি সবাই শুনেছি। আমরা অনেকেই হয়ত নানা ভাবে চেষ্টা ও করেছি। কিন্তু দিন শেষে আমরা প্রায় অনেকেই হতাশা গ্রস্ত হয়ে যাই। এর কারণ কি কখনো ভেবে দেখেছেন? এর প্রধান কারন হচ্ছে, সঠিক দিক নির্দেশনা এবং দক্ষতার অভাব। আমাদের আরেকটি বাজে বিষয় হচ্ছে আমরা সবাই শুধু শর্টকার্ট খুঁজে থাকি। আমি আপনাকে গ্যারান্টি দিতে পারি আপনি যদি শর্টকাট খোঁজাদের দলের হয়ে থাকেন তবে আপনি যতই চেষ্টা আর সময় লস করুন না কেন এখানে তা কোন কাজেই আসবে না। আপনি হয়তো কিছু ডলার ও আয় করবেন তবে দিন শেষে আপনার কোন ভিত্তি বা পিলার থাকবে না।


এখানে অনলাইন ইনকামের পর্ব গুলো বিভিন্ন ব্লগে ভাগ করা আছে। আপনি সব গুলো দেখতে পারলে, বিষয়ের উপর এমন সব দারুন আয়ডিয়া পাবেন যা আগে কোথাও পাননি বলে আশা করি। এবং তারপরই আপনি ডিসিশন নিবেন আপনি কোন পথে কাজ করতে চান অর্থাৎ আপনি নিজেকে অনলাইন ইনকামের কোন প্লাটফর্মে প্রতিষ্ঠিত করতে চান।  

 

চলুন শুরুতে জেনে নেই আমাদের প্রচলিত কিছু প্রশ্ন।

 

 

ফ্রিল্যান্সিং বা আউটসোর্সিং কি?

 

আমরা অনেকেই ফ্রিল্যান্সিং বা আউটসোর্সিং  সম্পর্কে সঠিক ধারণা রাখি না।  তাই এই শব্দগুলো নিয়ে আমরা দ্বিধা-দ্বন্দ্বে ভুগে  থাকি।

ফ্রিল্যান্সিং এর বাংলা অর্থ দাঁড়ায় মুক্ত চাকরি।  আউটসোর্সিং ও এর কাছাকাছি যার অর্থ দাঁড়ায় কর্মক্ষেত্রে উপস্থিত না থেকে বাহির থেকে কাজ  সম্পাদন করা। 

অর্থাৎ শব্দগুলো ব্যাখ্যামূলক অর্থ দাঁড়াচ্ছে,  আপনি মুক্তভাবে এবং কর্মক্ষেত্রের অন্তর্গত না হয়ে নিজের খেয়াল-খুশি মতো  কাজ করবেন।  আপনার কোন কাজের  বাধা ধরা সময় থাকবে না। এবং কোন কর্মক্ষেত্রের অন্তর্গত না হওয়ায় আপনি কাজ করে যাবেন যখন আপনার ইচ্ছা হয়। 

 

আরোও পড়ুনঃ ইউটিউব থেকে আয় করুন কোন ভিডিও না বানিয়ে

 

 

ফ্রিল্যান্সিং বা আউটসোর্সিং শুরুর পূর্বে যে বিষয়গুলো জানতে হবে?

 

ফ্রিল্যান্সিং বা আউটসোর্সিং শুরু করার পূর্বে এই বিষয়গুলো অবশ্যই আপনার মাথায় রাখতে হবে। কারণ কোন কাজ শুরু করার পূর্বে অবশ্যই আপনাকে কিছু পূর্ব প্রস্তুতি গ্রহণ করতে হয়।

 

(১) আপনাকে অবশ্যই কাজের প্রতি একাগ্রতা এবং দৃঢ়চেতা হতে হবে। 

(২) আপনি যদি এটা না পরিশ্রম করতে পারেন সে ক্ষেত্রে দিনে চার থেকে পাঁচ ঘন্টা সময় অবশ্যই দিতে হবে।

(৩) প্রতিটি বিষয় শুরু করার পূর্বে সে বিষয় সম্পর্কে সম্যক ধারণা পেতে বিষয়টি সম্পর্কে বিস্তারিত  জেনে নিয়ে কাজ শুরু করতে হবে।

(৪) আপনার প্রয়োজনীয়  ডিভাইস যেমন, ল্যাপটপ বা ডেস্কটপ, মোবাইল অবশ্যই থাকতে হবে

(৫) আপনি বিভিন্ন কোর্সের আন্ডারে প্রশিক্ষণ নিতে পারেন। তবে আপনার যদি সে পরিমাণ ইনভেস্ট করার ইচ্ছা না থাকে সে ক্ষেত্রে আপনি সরকারি কিছু কোর্স রয়েছে সেগুলোতে জয়েন করতে পারেন।

(৬) যেহেতু অনলাইন প্লাটফর্ম টি সম্পূর্ণ ইংরেজি ভাষার ওপর গড়ে উঠেছে তাই আপনাকে কিছুটা হলেও ইংরেজি ভাষা পারদর্শী হতে হবে। অর্থাৎ, ইংরেজি পড়া ও লিখা জানতে হবে।

 

অনলাইনে ইনকাম কি হালাল না হারাম?

 

প্রতি ধর্মে হালাল এবং হারাম সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা রয়েছে। তাই কোন কাজ শুরু করার পূর্বে সে কাজের হালাল না হারাম বিষয়টি মাথায় আসা স্বাভাবিক। আসুন বিস্তারিত জেনে নেই….