ঘর থেকে টিকটিকি তাড়ানোর উপায়

টিকটিকির বাস প্রায় আমাদের সবার ঘরেই। টিকটিকি দেখলেই আমাদের নাক কুঁচকে যায়। কিন্তু ঘর থেকে টিকটিক সরানো সত্যিই কঠিন। গায়ে টিকটিকি পরা অশুভ বলে মনে করেন অনেকেই।  বাড়িতে টিকটিকির উৎপাত নিয়ে সমস্যায় প়ড়েন অনেকেই। টিকটিকি যে শুধু পোকা খেয়ে সাফ করে, তা নয়। তার পাশাপাশি তারা ঘর নোংরাও করে।

 

যে কারণে টিকটিকি ঘরে আসে

 

তারা তোমার অবশিষ্টাংশের গন্ধে আকৃষ্ট হয়। আপনি আপনার ফ্রিজে খাবার সংরক্ষণ করতে ভুলবেন না।

 

আপনার সিলিং, খোলা জানালা, বায়ুচলাচল ব্যবস্থা এবং নিষ্কাশন ফ্যানের ফাটল দিয়ে প্রবেশ করা তাদের পক্ষে সহজ নয়।

 

আপনার ঘরের উষ্ণতা এবং উচ্চ তাপমাত্রা তাদের আপনার স্থানের মধ্যে প্রলুব্ধ করতে পারে।

 

টিকটিকি আপনার বাড়ির ময়লা আকৃষ্ট হতে পারে. আপনার স্টোরেজ স্পেস এবং আপনার বিশৃঙ্খল অন্য যেকোন লোকেশন পরিষ্কার করুন।

 

উষ্ণ জল টিকটিকিকে আকর্ষণ করে। আপনি বরফ জল দিয়ে তাদের থেকে পরিত্রাণ পেতে পারেন। 

 

তবে কয়েকটি সাধারণ পদ্ধতিতে টিকটিকির উৎপাত কমানো যায়। দেখা যাক সেগুলি। নিন ঘর থেকে কী ভাবে টিকটিকি সরাবেন।

 

১. টিকটিকির উৎপাত যেখানে বেশি, সেখানে ছড়িয়ে রাখুন ডিমের খোলা। এই গন্ধে অল্প সময়েই টিকটিকি মুক্ত হবে জায়গাটি।

 

২. জানালার কোণে বা ভেন্টিলেটরে রেখে দিন রসুনের কোয়া। রসুনের কোয়ায় গন্ধে বাড়ি টিকটিকি মুক্ত হবে সহজেই।

 

৩. পেঁয়াজের মধ্যে থাকা সালফারের গন্ধ টিকটিকি সহ্য করতে পারে না। তাই টিকটিকির চলাচলের পথে বা জানালার কোণে কয়েক টুকরা পেঁয়াজ কিছু সময়ের জন্য রেখে দিলে সহজেই জব্দ হবে টিকটিকি।

 

৪. গোলমরিচ বা শুকনো মরিচের গুঁড়ার গন্ধ টিকিটির মস্তিষ্ককে অবশ করে দেয়। শরীরের অস্বস্তি এড়াতে এই গন্ধ থেকে দূরে থাকে টিকটিকি। তাই গোলমরিচের গুঁড়া বা মরিচের গুঁড়া পানিতে মিশিয়ে টিকটিকি উপদ্রুত এলাকায় স্প্রে করলে ঘরে টিকটিকি আসে না। তবে বাড়িতে শিশু থাকলে এই উপায় অবলম্বনে বাড়তি সতর্কতা নিন। কোনওভাবেই এই স্প্রে যেন তাদের নাগালের মধ্যে না যায়।

 

৫. তামাকের কড়া গন্ধ টিকটিকি সহ্য করতে পারে না। কিছুটা কফি পাউডারের সঙ্গে তামাকের গুঁড়া মিশিয়ে ছোট ছোট গুলি আকারের বল তৈরি করে নিন। তার পর সেগুলো টিকটিকির চলাচলের পথে রেখে দিন। এতে সহজেই সরবে টিকটিকি।