বিসিএস পরীক্ষায় ভালো করার কৌশল

বিসিএস পরীক্ষা কি? 

 

বিসিএস পরীক্ষা বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস (Bangladesh Civil Service, সরকারি  চাকরির সর্বশ্রেষ্ঠ পদ) এবং বিভিন্ন সংস্থার (যেমন- পুলিশ, ব্যাংক, শিক্ষা ইত্যাদি) অধীনে কাজ করার জন্য বাংলাদেশে প্রতিষ্ঠিত একটি সাধারণ প্রশাসনিক পরীক্ষা।

 

এটি বাংলাদেশ সরকারের নিকটস্থ বিভিন্ন সার্কুলার সাধারণ নিয়মে প্রকাশিত হয়, যা এই পরীক্ষার সম্পর্কে সকল বিস্তারিত তথ্য উপলব্ধ করয়।

 

বিসিএস পরীক্ষা নানা মৌলিক ও সাধারণ জ্ঞান, সাম্প্রতিক বাংলাদেশের সম্পর্কিত বিষয়, সাধারণ গণিত, বাংলা ভাষা, ইংরেজি ভাষা ও সাহিত্য, সাধারণ বিজ্ঞান, সামাজিক বিজ্ঞান ইত্যাদি বিভিন্ন বিষয়ে ভারতের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রি প্রশিক্ষণগ্রন্থ ও সাধারণ জ্ঞান সম্পর্কিত প্রশ্ন থাকতে পারে।

 

পরীক্ষার কিছু বিশেষ পর্যায়, যেমন গবেষণা প্রস্তুতি, মৌলিক গণিত, সাধারণ স্বাস্থ্য ইত্যাদি থাকতে পারে, যা পরীক্ষার প্রশ্ন গ্রুপে উপস্থাপন করা হয়ে থাকে।

 

বিস্তারিত তথ্য জানতে, বাংলাদেশের সরকারি ওয়েবসাইট এবং বিসিএস সার্কুলারগুলি অনুসরণ করা উচিত।

 

বিসিএস পরীক্ষার নিয়ম

 

বিসিএস পরীক্ষা বাংলাদেশের সিভিল সার্ভিস পরীক্ষা, যা বাংলাদেশ সরকারের নিকটস্থ বিভিন্ন সার্কুলারে নির্ধারিত নিয়মাবলী অনুসরণ করে। নিম্নলিখিত প্রকারে এই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হতে পারে:

 

১. প্রিলিমিনারি পরীক্ষা: প্রথমে এই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয় যেখানে সম্পর্কিত বিষয়ে সাধারণ জ্ঞানের প্রশ্ন থাকে। এই পরীক্ষার উত্তরগুলি নেগেটিভ মার্কিং নেই এবং শূন্য উত্তরের জন্য মানে হবে প্রশ্ন উত্তর না দেওয়া।

 

২. রিটেন পরীক্ষা: প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ উম্মুক্ত প্রার্থীরা রিটেন পরীক্ষা দিতে যাচ্ছেন। এই পরীক্ষাতে সাধারণভাবে গবেষণা প্রস্তুতি, সাধারণ জ্ঞান, বাংলা, ইংরেজি, প্রবন্ধনা বিষয়ে প্রশ্ন থাকে।

 

৩. ইন্টারভিউ: রিটেন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের সাথে ব্যাক্তিগতভাবে ইন্টারভিউ নেয়া হয়, যেখানে প্রার্থীদের ব্যক্তিগত স্বাস্থ্য, বৈয়েকতিকতা, সামাজিক যোগাযোগ ক্ষমতা, বৈয়েক্তিক গুণ, জ্ঞান, ক্ষেত্রের সম্পর্কিত প্রশ্ন গুলি পূছা হয়।

 

সকল পরীক্ষায় সরকারি  চাকরির জন্য নির্ধারিত পর্যায়, পাশে উপস্থাপন প্রদর্শন ও নিয়োগ ক্রমাগত হয়। পরীক্ষার নির্ধারিত নীতি, শর্তাবলী এবং সিলেবাস সম্পর্কে আপনি সরকারি ওয়েবসাইটে সম্পর্কিত বিষয়ে বিশেষভাবে জানতে পারেন।

 

বিসিএস পরীক্ষায় ভালো করার কৌশল 

 

বিসিএস পরীক্ষায় ভালো করার উপায় নিম্নোক্ত মডেলগুলি অনুসরণ করা যুক্তিসহকারে আপনার প্রস্তুতি করতে সাহায্য করতে পারে:

 

১. সঠিক বিষয় জ্ঞান: পরীক্ষার সার্বিক বিষয় জ্ঞান এবং সঠিক প্রস্তুতি একজন ভালো বিসিএস প্রার্থীর জন্য গুরুত্বপূর্ণ। নিয়মিত পাঠ্যপুস্তক পড়াশোনা এবং নোট তৈরি করুন।

 

২. পরীক্ষার প্রস্তুতি: সঠিক প্রস্তুতি করার জন্য পরীক্ষা প্যাটার্ন অনুসরণ করুন, প্রিভিউস ইয়ারস প্রশ্নপত্র সমাধান করুন এবং মকটেস্ট পরীক্ষা দিন।

 

৩. মকটেস্ট এবং মডেল টেস্ট: মকটেস্ট এবং মডেল টেস্ট অনুশীলন এবং প্রস্তুতি করতে সাহায্য করতে পারে।

 

৪. সময় প্রবন্ধনা: পরীক্ষার প্রস্তুতির জন্য সময় প্রবন্ধনা গুরুত্বপূর্ণ। নির্ধারিত সময়ে পাঠ্যপুস্তক পড়ুন, নোট তৈরি করুন এবং অনুশীলন করুন।

 

৫. সম্পৃক্ত বিষয় ক্যাটাগরি: বিভিন্ন বিষয়ে প্রস্তুতি করার জন্য বিষয় ক্যাটাগরির উপর গুরুত্ব দিন। আপনার প্রস্তুতি মোড এবং সময়মান হওয়া গুরুত্বপূর্ণ।

 

এগুলি মনে রাখলে, বিস্তারিত প্রস্তুতি এবং প্রশ্নপত্র অনুশীলনের মাধ্যমে আপনি বিসিএস পরীক্ষায় সফলভাবে উত্তীর্ণ হতে পারবেন। ভাগ্যবান হোক আপনার পরীক্ষা!

 

বিসিএস পরীক্ষা সফলভাবে উত্তীর্ণ হওয়ার জন্য আরও কিছু উপায় এইভাবে অনুশীলন করতে পারেন:

 

৬. প্রস্তুতিতে প্রযুক্তি: অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ সময়ের প্রস্তুতিতে স্মার্টফোন অ্যাপস এবং ওয়েবসাইট ব্যবহার করা যেতে পারে, যা পরীক্ষার প্রস্তুতি এবং প্রাকটিসে সহায়ক হতে পারে।

 

৭. স্বাস্থ্য দেখভাল: ভাল খাওয়া-পান করুন এবং যোগাযোগ করার সময় আপনার শরীরের স্বাস্থ্যের যত্ন নেওয়া গুরুত্বপূর্ণ।

 

৮. প্রাকটিস করুন: বিভিন্ন বিষয়ে প্রশ্ন সমাধান, মকটেস্ট দেওয়া, মডেল পরীক্ষা করা এবং সময়ের মধ্যে আপনার গল্পনা সম্পাদন করা এই সব আপনার প্রস্তুতি অনুশীলনে সহায়ক হতে পারে।

 

৯. ধৈর্য রাখুন: বিস্তারিত প্রস্তুতি সময় এবং উপলব্ধি নিয়ে এইতে সহজেই ক্ষেত্রে হারাবার সাম্প্রতিক সময়ে ধৈর্য রাখা গুরুত্বপূর্ণ।

 

১০. কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করুন: শেষ পরীক্ষার পর আপনার শিক্ষকদের এবং পরিবারের কাছে আপনার কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করুন এবং উদ্দীপনা প্রদান করুন।

 

এগুলি মনে রেখে আপনি আপনার প্রস্তুতি আরও উন্নত করতে পারবেন এবং বিস্তারিত পরীক্ষায় সাফল্য অর্জন করতে সাহায্য হবে। শুভকামনা রইল প্রস্তুতির জন্য!

 

বিসিএস পরীক্ষার জন্য বুক লিস্ট 

 

বাজারের যেকোনো পাবলিকেশন্স এর এক সেট বই কিনতে পারেন। তবে কিছু ভালো বই 

বিসিএস পরীক্ষার  সঠিক প্রস্তুতির জন্য নিম্নোক্ত কিছু বই সামগ্রী সম্পন্ন লিস্ট দেওয়া হল:

 

১. “বাংলাদেশের ইতিহাস” – জনাব মুহম্মদ জাফর ইকবাল

২. “বাংলাদেশের ভূগোল” – জনাব আতাউর রহমান খান

৩. “বাংলাদেশের সামাজিক ও রাজনৈতিক ইতিহাস” – জনাব মোহাম্মদ জাফর ইকবাল

৪. “বাংলাদেশের অর্থনীতি” – জনাব মোহাম্মদ জাফর ইকবাল

৫. “সাধারণ জ্ঞান (বাংলা)” – প্রকাশক: পিসি পাবলিকেশন্স

৬. “করেক্টিভ বাংলা ভাষার উন্নতি” – প্রকাশক: প্রমাথমিক প্রকাশনী

৭. “বাংলাদেশের আধুনিক ইতিহাস” – জনাব সৈয়দ আবুল মাল আবদুল মালেক

৮. “গণিতের জন্য সাধারণ জ্ঞান” – প্রকাশক: পিসি পাবলিকেশন্স

৯. “বিজ্ঞানের সাধারণ জ্ঞান” – প্রকাশক: পিসি পাবলিকেশন্স

১০. “ইংরেজি ভাষা ও সাহিত্য” – জনাব নাজিমুল হক

 

এই বইগুলি পরীক্ষার প্রস্তুতির জন্য গুরুত্বপূর্ণ সামগ্রী প্রদান করতে সাহায্য করতে পারে। আপনি এই বইগুলি পড়ে বৈশিষ্ট্যিক প্রস্তুতি করতে পারেন এবং বিস্তারিত বিষয় বিবেচনা করতে সাহায্য হবে। এগুলি পাশাপাশি প্রিভিউস ইয়ারস প্রশ্ন সমাধান করা এবং মকটেস্ট প্রদান করা আপনার প্রস্তুতির জন্য অনুশীলনে সহায়ক হতে পারে। শুভকামনা রইল প্রস্তুতির জন্য!

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *