প্রাকৃতিকভাবে চুল ঘন করার উপায়

সুন্দর চুল মানুষের সৌন্দর্য কে ফুটিয়ে তোলে, করে তোলে আরও আকর্ষণীয়। তবে প্রতিনিয়ত চুল পড়তে থাকলে চুলের স্বাভাবিক সৌন্দর্য আর থাকেনা। তাই আমরা যখন চুল ঘন করার উপায় জানতে প্রতিনিয়ত ইন্টারনেটে সার্চ করে যাচ্ছি। তখন চুল পড়ার জন্য কয়েকটি বিষয়ে খুব দৃঢ়তার সাথে লক্ষণীয় হয়। বিষয়গুলোর ভেতর, পরিবেশ দূষণ, অনিয়মিত খাদ্যাভাস, অপরিণত লাইফস্টাইল, মানসিক চাপ। সহ আরো কয়েকটি বিষয়ে আমাদের সামনে উঠে আসে। তবে চুল যে কারণেই পড়ে থাকুক না কেন, অসাভাবিক এই চুল পড়াকে দ্রুত সময়ের ভেতর বন্ধ করতে না পারলে তা আরও বিপদের কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে। তবে হতাশ হবার কিছু নেই। চুল পড়ার কারণ এবং পরিমিত যত্নের মাধ্যমে চুলের ঘনত্ব আগের মত ফিরে আসা ফিরে আনা সম্ভব।

 

তবে চলুন দেখে নেই, চুল ঘন করার উপায় গুলো 

 

 

 

 

(১) প্রতিদিন শ্যাম্পু বা তেল কখনই মাথায় ব্যবহার করা যাবে না। এতে চুলের গোড়া নরম হয়ে ঝরে পড়ে। সপ্তাহে একটি নির্দিষ্ট দিন হালকা গরম তেল দিয়ে চুল এবং মাথার স্কাল্প ভালোভাবে ম্যাসাজ করে শ্যাম্পু করে ফেলতে হবে। তেল ব্যবহারের ক্ষেত্রে আপনি নারিকেল তেল, আমন্ড অয়েল, অলিভ অয়েল এর মতো প্রাকৃতিক তেল ব্যবহার করতে পারেন। এগুলো চুলের রুক্ষতা দূর করে এবং চুলের গোড়ায় পুষ্টি জোগাবে। এবং চুল পড়া বন্ধ করে চুলের ঘনত্ব বৃদ্ধিতে সহায়তা করবে।

 

চুল ঘন করার উপায়

 

(২) পেঁয়াজের রস, কাস্টার ওয়েল, নারিকেল তেল, অ্যালোভেরাতে চুল ঘন করার জন্য গুরুত্বপূর্ণ সব মিনারেলস এবং ভিটামিন রয়েছে। সপ্তাহান্তে একবার চুলে ব্যবহার করে তা এক ঘন্টার জন্য রেখে দিয়ে চলে ভালোভাবে শ্যাম্পু করলে ধীরে ধীরে  চুল ঘন হতে থাকবে।

 

চুল ঘন করার উপায়

 

(৩) চুল পড়ার অন্যতম কারন গুলোর একটি হচ্ছে পরিমিত পুষ্টির অভাব। আপনার চুল যদি পরিমিত পুষ্টিহীনতায় ভোগে তাবে তা সহজেই দুর্বল হয়ে ঝরে পড়বে। তাই খাদ্য তালিকায় বিশেষ নজর রাখতে হবে। বাদাম, ডিম, দুধ, মাছ, দই এর মত খাবারগুলোতে ভিটামিন ই, ম্যাঙ্গানিজ, ভিটামিন বি২, ফসফরাস এবং ম্যাগনেসিয়াম এর মত গুরুত্বপূর্ণ উপাদান রয়েছে। তাই এসব খাবার নিয়মিত খাদ্য তালিকায় রাখার চেষ্টা করতে হবে। এছাড়া পালং শাক, বাধা কপি, পেয়ারা, কমলা, স্ট্রবেরির মতো ফলমূল ও শাকসবজি খেতে হবে।

 

চুল ঘন করার উপায়

 

(৪) চুলে কোনোভাবেই ও প্রয়োজনীয় জেল বা স্প্রে ব্যবহার করা যাবে না। খুশকি ও মাথার শুষ্কতার সমাধানে ভালো মানের শ্যাম্পু, তেল এবং কন্ডিশনার ব্যবহার করতে হবে। 

 

চুল ঘন করার উপায়

 

(৫) প্রতিরাতে শুতে যাওয়ার আগে চুলের গোড়ায় রক্ত চলাচল বৃদ্ধির জন্য স্ক্যাল্পে আঙ্গুল দিয়ে ড্রাই ম্যাসাজ (তেল দিয়ে মেসাজের ন্যায় ) করতে হবে। এতে করে চুলের গোড়ায় রক্ত চলাচল বৃদ্ধি পেয়ে চুলের বৃদ্ধি ত্বরান্বিত করবে সাথে সাথে চুল ঘন করতে সহায়তা করবে। 

 

উপরের বিষয়গুলো যথাযথ পালন করার সাথে সাথে আপনার চুল পড়ার কারণগুলো বের করে সেগুলোর উপর নিয়মতান্ত্রিক পদক্ষেপ, পাতলা চুল ঘন করতে দ্রুত সহায়তা করবে।