নিষিদ্ধের বিশ্বকাপ Qatar বিশ্বকাপ

Not Allowed in Qatar World Cup। FIFA WORLD CUP। Football World Cup 2022। 

New Rules। Jail। Alcohol। Sex। Football। World Cup। 2022। November। 

 

আর কিছুদিন পরেই কাতারে শুরু হতে চলেছে বিশ্বকাপ ফুটবল। মধ্যপ্রাচ্যের এই দেশে বরাবরই কড়াকড়ি বেশি। কাতার বিশ্বকাপ (Qatar World Cup) ফুটবলের আসরে এবার নতুন নিয়ম সামনে এল। জানা গিয়েছে, বিশ্বকাপ দেখতে যাওয়ার বাইরেও বেশকিছু কাজের ওপর নিষেধাজ্ঞা থাকছে। তার মধ্যে অবশ্যই অবৈধ যৌন মিলন শাস্তিযোগ্য অপরাধ হিসেবে গণ্য হবে। কাতার পুলিশের তরফ থেকে বলে দেওয়া হয়েছে, স্বামী-স্ত্রী বাদ দিয়ে বিশ্বকাপ দেখতে এসে যদি অবৈধ যৌন মিলন অবস্থায় কাউকে পাওয়া যায় তাহলে তাঁর জন্য অপেক্ষা করবে কঠিন শাস্তি। শুধু অবৈধ যৌন মিলনই নয়, কাতারে সমকামী সম্পর্কও কঠোরভাবে নিষিদ্ধ। একবার যদি কেউ দোষী হিসেবে প্রমাণিত হয় তাহলে সাত বছর পর্যন্ত জেল হতে পারে। অন্যদিকে ফিফার তরফ থেকে বিশ্বকাপে সবাইকে আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে। কাতার বিশ্বকাপে ফিফার (Fifa) মুখ্য নির্বাহী নাসের আল খাতের জানিয়েছেন, প্রত্যেক সমর্থকের নিরাপত্তা অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ তাঁদের কাছে। কিন্তু সর্বসমক্ষে ব্যক্তিগত ভালোবাসা দেখানো তাঁদের দেশের সংস্কৃতি নয়। প্রসঙ্গত কাতার খুবই রক্ষণশীল দেশ। যথারীতি তাদের নিয়ম-কানুনও অত্যন্ত কঠিন।

 

প্রথমবারের মতো মধ্যপ্রাচ্যের রক্ষণশীল দেশ কাতারে বসতে যাচ্ছে ফুটবল বিশ্বকাপের মতো মেগা আসর। বিশ্বের প্রায় সব প্রান্ত থেকেই ফুটবলপ্রেমীরা ভিড় করবেন এই মহোৎসবে।

 

শুধু মাঠের ফুটবলই নয়, অনেকে বিশ্বকাপের সময়টায় কাতারে যাবেন আনন্দ-ফুর্তি করতেও। কিন্তু চাইলেই সবধরনের ফুর্তি সেখানে করা যাবে না।

বরং মেনে চলতে হবে বেশকিছু নিয়ম। এমনকি নিয়ম না মানলে পড়তে হবে কঠোর শাস্তির মুখেও।

 

ফুটবল বিশ্বকাপের চেনা কিছু দৃশ্য এবার দেখা যাবে না। যেমন প্রিয় দলের খেলা শেষে রাতভর পার্টি, রাস্তায় হই-হুল্লোড়। কিন্তু রক্ষণশীল মুসলিম-প্রধান দেশ কাতারে এসব নিষিদ্ধ। এমনকি বিশ্বকাপ দেখতে এসে হোটেলে ওঠে স্বামী-স্ত্রী না হলে যৌন মিলনও করা যাবে না। বিশেষ করে ‘ওয়ান নাইট স্ট্যান্ড’ বা এক রাতের যৌনমিলন পুরোপুরি নিষিদ্ধ করা হয়েছে। নিয়মের ব্যতিক্রম হলে সাত বছর পর্যন্ত জেল হতে পারে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ‘ডেইলি স্টার’-এর বরাতে ‘মিরর’ এমনটাই জানিয়েছে।

READ MORE:  কাতার বিশ্বকাপে ফুটবলের বিশেষত্ব

 

কাতারে সমকামিতাও নিষিদ্ধ। ২০২২ বিশ্বকাপে তাই সমকামিতার সমর্থনে পোস্টার বা পতাকা ওড়ানো নিষিদ্ধ থাকবে। এমনকি মদ্যপানেও থাকবে নিষেধাজ্ঞা। কাতারের জাতীয় সন্ত্রাসবিরোধী কমিটির প্রধান মেজর জেনারেল আব্দুলআজিজ আল আনসারী জানিয়েছেন, নিষেধাজ্ঞাগুলো দেওয়ার কারণ আসলে বিশ্বকাপ দেখতে আসা সমর্থকদের নিরাপত্তা নিশ্চিতের স্বার্থেই। তার মতে, কাতারের সাধারণ লোকজন হয়তো এসব মেনে নিতে পারবেন না। কেউ কেউ আগ্রাসীও হয়ে উঠতে পারেন।  

 

কাতার বিশ্বকাপে ফিফার প্রধান নির্বাহী নাসের আল খাতের বলেন, ‘সমর্থকদের নিরাপত্তা আমাদের কাছে খুব গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু প্রকাশ্যে ব্যক্তিগত ভালোবাসা দেখানো আমাদের দেশের সংস্কৃতি নয়। সেটা সকলের জন্যই প্রযোজ্য। ‘