মাস্ক পড়ে নামাজ পড়া যাবে কি?

সাধারণ অবস্থায় মাস্ক পড়ে বা মুখমণ্ডল ঢেকে নামাজ পড়া যাবে না তবে ইসলামিক শরীয়ত মোতাবেক বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে অবশ্যই মাস্ক পরে নামাজ পড়া যাবে। 

 

সাধারণ অবস্থায় মুখমণ্ডল ঢেকে নামাজ পড়তে মহানবী (সাঃ) নিষেধ করেছেন। ইবনে মাজাহ এর  হাদিস নং ৯৬৬ অনুযায়ী, নবীজি (সাঃ) যে কোন ব্যক্তিকে নামাজরত অবস্থায় তার মুখমন্ডল ডাকতে নিষেধ করেছেন। আবার আবু দাউদের হাদিস নং ৬৪৩ মোতাবেক, মহানবী (সাঃ) নামাজের সময় কাপড় উপর থেকে নিচের দিকে ঝুলিয়ে দিতে ও মুখ ঢেকে রাখতে নিষেধ করেছেন। 

 

উপরের দুইটি হাদিসের দলিল মোতাবেক বিশ্ব বিখ্যাত ইসলামিক স্কলাররা মুখমন্ডল ঢেকে নামাজ পড়াকে মাকরূহে তাহরীমী বলেছেন। মাকরূহে তাহরীমী আসলে কেমন ধরনের মাকরূহ তা আমাদের জানা দরকার। এটি হারাম না হলেও নিষিদ্ধতার দিক দিয়ে হারাম এর কাছাকাছি। এতে লিপ্ত ব্যক্তি গুনাহগার ও তিরস্কারযোগ্য হবেন তবে শাস্তিরযোগ্য হবেন না। তবে ওজর ( বিশেষ অপারগতা) থাকলে মাকরূহে তাহরীমী এর জন্য দায়ী কাজ করলেও মাকরুহ হবে না। 

 

আর ও পড়ুনঃ এপেন্ডিক্স এর লক্ষণ এবং এপেন্ডিসাইটিস অপারেশন

 

মাকরূহে তাহরীমী এর সঙ্গার শেষ লাইনটিতে আমরা দেখতে পাচ্ছি, ওজর বা বিশেষ অপারগতা থাকলে মাকরুহ আর মাকরুহ থাকবে না। কারন আমরা জানি কারাহাত বা মাকরুহ এর বিধানটি উঠে যায় যদি বিশেষ অবস্থা থাকে। আর মানুষের যখন মৃত্যু নিয়ে সংশয় থাকে তার থেকে বিশেষ অবস্থা আর কি হতে পারে? মাস্ক পড়ে নামাজ পড়ার বিধানের ক্ষেত্রে আমাদের এই জিনিসটি বুঝতে হবে। 

 

বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে মাস্ক ছাড়া নামাজ পড়া অবশ্যই উজর বা বিশেষ অপারগতা। কারণ মাস্ক ছাড়া মসজিদে গিয়ে কেউ যদি নামাজ পড়ে আবার ওই জায়গায় তার আগে যদি কোনো করোনা রোগী মাস্ক ছাড়া নামাজ পড়ে থাকে যা উভয় ব্যক্তি জানতেন না তাহলে প্রথম ব্যক্তির জন্য দ্বিতীয় ব্যক্তি অসুস্থতা এমনকি মৃত্যুঝুঁকিতেও পড়বেন। তাই এই অবস্থায় মাস্ক পরা উভয় ব্যক্তির জন্যই অবশ্যই দরকার। আর নির্দিষ্ট ওজরের কারণে মাকরূহ এর জন্য দায়ী একটি কাজ না করলেও মাকরূহ হয় না তাই এক্ষেত্রেও মাকরূহ হবে না। 

 

 

আবার অনেকেই বলতে পারেন যে, আল্লাহর ঘরে এসে মাস্ক পরে নামাজ পড়ছে- আল্লাহর প্রতি বিশ্বাস নেই। এটা কোন যৌক্তিক কথা হতে পারে না। মসজিদে এসে মশার কামড় কিন্তু আমাদের খেতেই হয়। তখন আমরা এটা বলি নাই যে- আল্লাহর উপর বিশ্বাস আছে তাহলে মশা কামড় দিবে না। তখন আমরা আল্লাহর উপর বিশ্বাস রেখেই মশা থেকে বাঁচতে কয়েল ব্যবহার  করি।

ঠিক তেমনিভাবেই, করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচতে আল্লাহর উপর বিশ্বাস রেখেই আমাদের এই বিশ্বাসে মাস্ক ব্যবহার করতে হবে যে, মাস্কের উসিলায় আল্লাহ তায়ালা আমাদের শরীরে কোন করোনাভাইরাস প্রবেশ করতে দিবেন না। 

 

আল্লাহ আমাদের সবাইকে বুঝার তৌফিক দান করুন। আমিন।