অতিরিক্ত চা পান করার পরিণতি হতে পারে ভয়াবহ

চা আমাদের দেশে অত্যন্ত জনপ্রিয় একটি পানীয়। আমরা প্রায় সবাই চা পান করতে পছন্দ করি। চা এর রয়েছে অনেক স্বাস্থ্যগত উপকারীতা। তবে আমাদের দেশে অনেকেই প্রতিদিন অনেক বেশি পরিমাণে চা পান করেন। এর ফলে ঘটতে পারে নানা রকম স্বাস্থ্যগত ঝুঁকি। একদিনে ৪-৫ কাপ (৭১০-৯৫০ মিলিলিটার) চা পান করা আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য ভালো এবং কোনো দুশ্চিন্তা ছাড়াই পান করা যেতে পারে। কিন্তু এর বেশি চা পান করলেই ঘটতে পারে বিপত্তি। অনেকেই দিনে ৯-১২ কাপ, এমন পরিমাণ চা পান করে থাকেন, যা স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতির কারণ হতে পারে। চলুন জেনে আসা যাক অতিরিক্ত চা পানের ক্ষতিকর দিকগুলি। 

 

অতিরিক্ত চা খেলে কি হয়

চা এর মধ্যে প্রচুর পরিমাণে ট্যানিন নামক যৌগের উপস্থিতি রয়েছে। ট্যানিন এমন একটি যৌগ যা তার সাথে খাদ্য এর মধ্যে থাকা পুষ্টি উপাদান আয়রনকে দ্রবীভূত করে ফেলে এবং পরিপাকতন্ত্রের শোষণের অনুপযোগী করে তোলে। আয়রন আমাদের শরীরের জন্য একটি অতি প্রয়োজনীয় পুষ্টি উপাদান। আয়রনের অভাবে শরীরের মাংসপেশি দুর্বল হয় এবং অ্যানিমিয়া নামক রোগ হয়। অতিরিক্ত চা পান করলে শরীরে ট্যানিন নামক যৌগের পরিমাণ বেড়ে যায়। ফলে আমাদের খাবারের সাথে যে আয়রন প্রবেশ করে তা আমাদের পাকস্থলীর শোষণের অনুপযুক্ত হয়ে যায়। ফলে আমাদের শরীরে আয়রনের ঘাটতি দেখা দেয়। যদি কারও শরীরে আয়রনের ঘাটতি থাকে পূর্ব থেকেই, তবে তার অতিরিক্ত চা পান করা উচিত নয়। 

 

চা পাতায় রয়েছে প্রচুর ক্যাফেইন। অতিরিক্ত ক্যাফেইন গ্রহণ মানুষের অস্থিরতা, উদ্বেগ, দুশ্চিন্তা বৃদ্ধির জন্য অনেকসময় নিয়ামক হিসেবে কাজ করে। এক কাপ চা অর্থাৎ ২৩০ মিলি লিটার চা এর মধ্যেই প্রায় ১০-৬২ মিলিগ্রাম ক্যাফেইন থাকে। তাই কেউ যদি এক দিনে ৭-৮ কাপ চা পান করে তাহলে তার শরীরে ক্যাফেইনের মাত্রা ২৫০ মিলিগ্রাম এর অধিক হয়ে যায় যা শরীরের জন্য মোটেই ভালো কিছু নয়৷ এছাড়া অতিরিক্ত ক্যাফেইন মানুষের ঘুমের ব্যাঘাত ঘটায়। আমাদের ঘুমের জন্য সহায়ক হরমোনের নাম হলো মেলাটোনিন। ক্যাফেইন অনেক ক্ষেত্রে এই মেলাটোনিন নামক হরমোন উৎপাদনে বাধা প্রদান করে। ফলে মানুষের ঘুম কমে যায়। পর্যাপ্ত ঘুম না হলে অনেক মানুষের স্মৃতিশক্তি হ্রাস পায়, আরও নানা রকম শারীরিক – মানসিক রোগ সৃষ্টি হয়। এছাড়াও প্রতিদিন অতিরিক্ত চা পান করলে ক্যাফেইন এর উপর মানুষের নির্ভরতা বৃদ্ধি হয়। ফলে কখনও শরীরে অভ্যাসের তুলনায় কম ক্যাফেইন পেলে নানা রকম অসঙ্গতি যেমন- হৃৎস্পন্দন বৃদ্ধি, অবসাদ বৃদ্ধি, অকারণে বিরক্তি, মাথাব্যথা ইত্যাদি দেখা দেয় তখন। 

 

চা এর মধ্যে থাকা ট্যানিন নামক যৌগ পাকস্থলীতে এসিড উৎপাদনের পরিমাণ বাড়ায়। ফলে অতিরিক্ত চা খেলে এসিডিটির সমস্যা হয়, বিধায় বুক জ্বালাপোড়া করে। গর্ভবতী মহিলারা অতিরিক্ত চা পান করলে অকালে গর্ভপাত এবং বাচ্চা ওজনহীন হতে পারে।